আপডেট: ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৮   ||   ||   মোট পঠিত ৭০ বার

কৃষিতে বিশেষ পদক পেলেন কৃষাণী মনোয়ারা বেগম

মিঠু শিকদার, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : কৃষিতে বিশেষ পদক পেলেন কৃষাণী মনোয়ারা বেগমজাতীয় পর্যায়ে ২০১৭ সালে পরিবেশবান্ধব জৈব প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে নিরাপদ সবজি উৎপাদন, সম্প্রসারণ ও বাজারজাতসহ এলাকায় কর্মসংস্থানে অবদান রাখার জন্য ব্যক্তিগত পর্যায়ে কৃষিতে বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার মোস্তবাপুর গ্রামের কৃষাণী মনোয়ারা বেগম। দৈনিক গ্রামের কাগজ পত্রিকায় গত অক্টোবর ২০১৭ মাসে “বিষমুক্ত সবজির হাট মনোয়ারা বেগমের বাড়ি” ৮০ গৃহিণীকে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনে সহায়তা ও বাজারজাতকরণ শিরোনামের সংবাদ প্রকাশিত হবার পর তিনি এ পুরষ্কারে মনোনীত হন। গত ১৬ জানুয়ারি তার হাতে জাতীয় সবজি মেলার বিশেষ অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজনে অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মঈনউদ্দিন আবদুল্লাহ।
মনোয়ারা বেগম নিয়ামপুর ইউনিয়নের আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী ও নিয়ামতপুর ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য।
জনপ্রতিনিধি হলেও তিনি কৃষাণী পরিচয় দিতে ভালোবাসেন। মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে কয়েক মাটির চাড়িতে কেচো কম্পোষ্ট সার উৎপাদন করেন। নিজের জমিতে এই সার ব্যবহার করেন এবং অতিরিক্তটুকু বিক্রি করে দেন। এছাড়াও তিনি নিজে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন করেন। এলাকার ৮০জন গৃহিনীকে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনে সহযোগিতা করেন ,তাদের উৎপাদিত সবজি ক্রয় করে নেন এবং সেগুলো ঢাকায় রফতানি করেন। মনোয়ারা বেগম এর আগে উপজেলা,জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে সেরা জয়িতার পুরস্কার পান।
মনোয়ারা বেগমের স্বপ্ন তার উপজেলায় প্রতিটি বাড়িতে নিরাপদ সবজি উৎপাদন করা হবে। গৃহিনীরা নিজেদের পরিবারের সবজির চাহিদা মিটিয়ে বাকিটুকু বিক্রি করবে। ইতিমধ্যে কৃষানীদের উদ্বুর্দ্ধ করা হচ্ছে।
কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার জাহিদুল করিম জানান, দৈনিক গ্রামের কাজগসহ বিভিন্ন পত্রিকায় মনোয়ারা বেগমকে নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এটি কৃষি অধিদপ্তরের দৃষ্টিতে আসে। জৈব কৃষিতে অবদান রাখার জন্য তাকে গত ১৬ জানুয়ারী আনুষ্ঠানিক ভাবে ঢাকায় জাতীয় সবজি মেলায় বিশেষ পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেণ, মনোয়ারা বেগম নিয়ামতপুরসহ কালীগঞ্জ উপজেলায় বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনে ব্যাপক অবদান রাখছে। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে কারিগরিসহ সার্বিক সহযোগিতা করা হচ্ছে।আশা করা হচ্ছে খুব শিঘ্রই কালীগঞ্জ থেকে বিষমুক্ত সবজি বিদেশে রফতানি করা যাবে।

তথ্যসূত্রঃ Daily gramerkagoj