আপডেট: ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৮   ||   ||   মোট পঠিত ৯৪ বার

যশোরে সাতটি সড়ক সংস্কার না হলে ধর্মঘট

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন যশোর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল আহ্বায়ক মো. আলী আকবর। ছবি: প্রথম আলোযশোরের সাতটি সড়ক-মহাসড়ক আগামী এক মাসের মধ্যে সংস্কার না করলে দক্ষিণবঙ্গের ১৮টি সড়কে (রুট) যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

যশোর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি আজ বুধবার দুপুরে প্রেসক্লাবে যশোর মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আলী আকবর বলেন, যশোরের জাতীয় ও স্থানীয় সব কটি সড়ক অত্যন্ত বেহাল। এসব রাস্তা এতটাই খারাপ যে যানবাহন চলানোর সময় নিয়ন্ত্রণ রাখা যাচ্ছে না। যানবাহন ভেঙে যাচ্ছে। সময় বেশি লাগছে। দুর্ঘটনায় রাস্তায় জীবন যাচ্ছে। সরকার যদি দ্রুত এসব রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু না করে তাহলে আমরা যশোর থেকে দক্ষিণবঙ্গের ১৮টি রুটে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করতে বাধ্য হব।

লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করা হয়, এ বিষয়ে সড়ক মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে বারবার তাগাদা দেওয়া হলেও কোনো ফল পাওয়া যায়নি। যে কারণে আগামী এক মাসের মধ্যে সড়কগুলো সংস্কারের আল্টিমেটাম দিতে বাধ্য হচ্ছেন পরিবহন ব্যবসায়ীরা।

আলী আকবর বলেন, ‘দাবি পূরণ না হলে আগামী ১ মার্চ থেকে দক্ষিণবঙ্গের ১৮টি রুটে আমরা গাড়ি চালাতে ইচ্ছুক নই। পাশাপাশি এসব রুটে অন্য জেলার গাড়িও চলতে দেওয়া হবে না।’

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, যশোর-খুলনা, যশোর-বেনাপোল ও যশোর-মাগুরা জাতীয় মহাসড়ক, যশোর-ঝিনাইদহ আঞ্চলিক মহাসড়ক, যশোর-নড়াইল, যশোর-চৌগাছা ও যশোর রাজারহাট-মঙ্গলকোট সড়কে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় সড়কগুলো এখন গাড়ি চলাচলের অনুপযোগী ও চরম ঝুঁকিপূর্ণ। এসব সড়কে গাড়ি চালাতে গিয়ে যানবাহন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। পাশাপাশি যাত্রী ভোগান্তি ও দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে গেছে। যে কারণে বাস চালক ও শ্রমিকেরা এসব সড়কে গাড়ি চালাতে অনীহা প্রকাশ করছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রমেন্দ্রনাথ মণ্ডল, সহসাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার কুণ্ডু, বাংলাদেশ পরিবহন সংস্থা শ্রমিক সমিতির মামুনুর রশিদ বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক মো. মোর্তজা হোসেন, সহসভাপতি শাহিদ হোসেন।

তথ্যসূত্রঃ prothom-alo