আপডেট: ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ৬১ বার

আজ শুভ বড়দিন

খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শুভ বড়দিন আজ। এই পুণ্যদিনে খ্রিষ্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিষ্ট ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে বেথলেহেম শহরে জন্মগ্রহণ করেন। খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, যিশুখ্রিষ্ট জন্ম নিয়েছিলেন সৃষ্টিকর্তার মহিমা প্রচার এবং মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করার জন্য। বিশ্বের অন্য দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়ে বড়দিন পালন করা হয়। দিনটি উপলক্ষে দেশের গির্জাগুলোতে আজ বিশেষ প্রার্থনা করা হবে। ক্রিসমাস ট্রি সাজানো, সান্তা ক্লজের উপহার, স্বজনদের বাড়িতে ও বিনোদনকেন্দ্রে বেড়াতে যাওয়া আর রকমারি খাবার উপভোগের মধ্য দিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে সবাই দিনটি উদযাপন করবেন। অনেক খ্রিস্টান পরিবারে তৈরি হবে বড়দিনের বিশেষ কেক। ধর্মীয় গানের আসরও বড়দিনের অন্যতম অনুষঙ্গ। আজ সরকারি ছুটির দিন।
বড়দিন উপলক্ষে পৃথক বাণীতে দেশের খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।
এ ছাড়া শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলাদেশ খ্রিষ্টান অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন এবং সংগঠনটির মহাসচিব নির্মল রোজারিও। বড়দিন উপলক্ষে এক যৌথ বিবৃতিতে তাঁরা বলেন, সংঘাতপূর্ণ অশান্ত এই পৃথিবীতে আজ যিশুখ্রিষ্টের আদর্শ ও শিক্ষা অনুসরণ করা জরুরি হয়ে পড়েছে। শান্তি ও ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠায় যিশুখ্রিষ্টের শিক্ষা বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে।

তথ্যসূত্রঃ Samajer Katha