আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ৪১ বার

মুখস্ত বিদ্যা, কোচিং ও বিভিন্ন পরীক্ষার নামে নাজেহাল হয়ে পড়ছে শিক্ষার্থীরা

মুখস্ত বিদ্যা, কোচিং ও বিভিন্ন পরীক্ষার নামে নাজেহাল হয়ে পড়ছে শিক্ষার্থীরা আড়ম্বর আয়োজনে যশোর কলেজের রজত জয়ন্তী উৎসব উদযাপিত হয়েছে। আয়োজন ঘিরে কলেজ ক্যাম্পাস সাজানো হয় নানান সাজে। কলেজের চারিদিকে রঙিন ব্যানার ও ফেস্টুন আর বাহারী শোভাবর্ধনকারী পতাকা টাঙানো হয়। কোন কিছুতেই কমতি ছিল না। এতে আলোচনা সভা, আনন্দ শোভাযাত্রা, স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ আরও অনেক আয়োজনে দিনটি উদযাপন করলো কলেজ কর্তৃপক্ষ।
সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় যশোর শহরের টাউনহল মাঠ থেকে শুরু হয় আনন্দ শোভাযাত্রা। সকাল সাড়ে ১০টার আয়োজনে ছিল আলোচনা সভা। এতে সভাপতিত্ব করেন কলেজের গর্ভানিং কমিটির সভাপতি ডক্টর কাজী আনিস আহমেদ।
প্রধান অতিথি ছিলেন যশোর-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ। এ সময় তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ জনবান্ধব সরকার। দেশের উন্নয়নে সরকার নানা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। বিশেষ করে মানবসম্পদ উন্নয়নে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছে। মানব সম্পদকে দক্ষ করতে নানা ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার।
এমপি নাবিল বলেন, যশোরবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ভৈরব নদ সংস্কার। সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে ৬ কোটি টাকার বেশি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যার কাজের টেন্ডার চলছে। খুব শিগগিরই শুরু হবে সংস্কার কাজ। তিনি বলেন, যশোর বিমানবন্দর উন্নয়নে প্রায় ১শ’কোটি টাকার কাজ দিয়েছে একনেকে। আগামী ২০১৮ সালের মধ্যে যশোরের প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যুৎ পৌঁছে যাবে।
অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ও লেখক, গবেষক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। তিনি বলেন, মুখস্ত বিদ্যা, কোচিং ও বিভিন্ন পরীক্ষার নামে নাজেহাল হয়ে পড়ছে শিক্ষার্থীরা। জিপিএ-৫ পেলেও মাতৃভাষার প্রতি দখল নেই বর্তমান শিক্ষার্থীদের মাঝে।
তিনি বলেন, বর্তমানে রক্তে ভাইরাস ঢোকার মত মানুষের মাঝে ঢুকে পড়েছে ফেসবুক নামের উপদ্রব। এ সব উপদ্রব দূর করে সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত না হলে জাতির ভবিষ্যত অন্ধকারের দিকে ধাবিত হচ্ছে বলে দাবি তোলেন এ শিক্ষাবিদ।
এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক অধ্যাপিকা নার্গিস বেগম।
মুখস্ত বিদ্যা, কোচিং ও বিভিন্ন পরীক্ষার নামে নাজেহাল হয়ে পড়ছে শিক্ষার্থীরা
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আমিনুল ইসলাম টুকু, শিক্ষাবিদ তারাপদ দাস, অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান, সাবেক অধ্যক্ষ সুলতান আহমেদ, যশোর কলেজের অধ্যক্ষ মুস্তাক হোসেন শিম্বা, উপশহর কলেজের অধ্যক্ষ শাহিন ইকবাল, এড.ইসহক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হারুন-অর-রশীদ, শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক শাহাবুদ্দিন, বিপ্লব কুমার সেন, বদিয়ার রহমান, হাসানুজ্জামান, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা লুৎফুল কবীর বিজু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি ফয়সাল খান প্রমুখ। পরে স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

তথ্যসূত্রঃ Daily gramerkagoj