আপডেট: সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ৯৪ বার

ভারত-ভ্রমণের দু’মাসের মধ্যে ফের যাওয়া যাবে না

এম এ হামিদ, : দু’মাস অতিক্রান্ত না হওয়ায় ইউপি সদস্য ঈসমাইল মিয়া তার মা নজিরুন্নেছাকে নিয়ে ফের ভারত যেতে পারেননি; ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর চেকপোস্ট থেকে ভ্রমণ ভিসায় ভারতে গমনেচ্ছু অনেককে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। যারা দুই মাসের ভিতরে আবারও ভারতে যেতে চাচ্ছেন।
 
সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চাতলাপুর চেক পোস্টে গিয়ে দেখা যায়, অনেকেই ভারতে প্রবেশ করতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন।

জানা যায়, রোববার ভারতের ইমিগ্রেশন অফিস এ আদেশ জারি করেছে। হঠাৎ করে জারি হওয়া আদেশের কারণে অন্যদের মতো অনেক রোগীও আর ভারতে যেতে পারছেন না।

রোববার ও সোমবার এ দুদিনে ১৫ থেকে ২০ জনকে সীমান্ত-চেকপোস্ট থেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নয়াদিল্লির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভিজিট ভিসার অবৈধ ব্যবহার ঠেকাতে এমন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তবে বিশেষ কারণে হাইকমিশনের অনুমতি সাপেক্ষে ভারত ঘুরে আসার দুই মাসের মধ্যে আবারও ভারতে প্রবেশ করা যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, পর্যটকদের ভিসা দেয়া হয় বিনোদনের জন্য বেড়াতে, আত্মীয় স্বজনকে দেখতে। কিন্তু অনেক সময় এই ভিসার অবৈধ ব্যবহার হয়ে থাকে বলেই এমন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

ভারতে যাবার জন্য সীমান্তের চেকপোস্টে আসা নছিরুন নেছার ছেলে শরীফপুর ইউপি সদস্য ঈসমাইল মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, তার মা নজিরুন্নেচ্ছা ভারতের কৈলাশহরের বাবুর বাজারের কমরুন্নেছা নামের তার বোনের বাড়িতে গিয়ে চিকিৎসা করাবেন। কিন্তু এক মাস আগে  সেখানে গিয়েছিলেন বলে এখন আর তিনি যেতে পারছেন না।

তিনি বলেন, ট্রাভেলার ট্যাক্স ব্যাংকে জমা করা হয়েছে। অথচ তাকে যেতে দেওয়া হচ্ছে না।

সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ী তসদিক হোসেন ইমরান বাংলানিউজকে জানান, রোববার ও সোমবার এ দুদিনে প্রায় বিশ জনকে ফেরত যেতে দেখেছেন তিনি।

তেলিবিল এলাকার মায়া মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, যারা এক বৎসরের জন্য মাল্টিপল ভিসা নিয়ে ভারতে তাদের আত্মীয় স্বজনকে দেখতে যান, তাদের জন্য এমন নিয়ম না করে যারা ৫ বছরের জন্য ভিসা নিয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে করা উচিত ছিল।

ভারতের কৈলাশহরের ভগবাননগরের জুনাব আলীর বাড়িতে অসুস্থ ফুফু জয়নুল বিবিকে দেখতে চেকপোস্টে এসেছেন আশরাফুল ইসলাম। বাংলানিউজকে তিনি বলেন, হঠাৎ করে এমন নিয়ম করায় তিনি তার অসুস্থ ফুফুকে দেখতে যেতে পারছেন না। দুই মাস পার হলে হয়তো আর অসুস্থ ফুফুকে আর জীবিত পাবেন না।

চাতলাপুর চেক পোস্টের ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা জামাল হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, গতকাল (১৭ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় ইমিগ্রেশন থেকে এ আদেশ দেয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, দুই মাসের মধ্যে কেউ ভারতে ভ্রমণ শেষে বাংলাদেশে প্রবেশ করার আবারও ভারত যেতে চাইলে তাকে দু’মাস অপেক্ষা করতে হবে। দুই মাস অতিবাহিত না হওয়া পর্যন্ত ভারত ঘুরে আসা কাউকে দ্বিতীয়বার ভারতে যেতে দেয়া হবে না।

তিনি জানান, এ আদেশটি শুধু ট্রাভেল ভিসা-১ এবং ট্রাভেল ভিসা-২ এর জন্য প্রযোজ্য হবে। কিন্তু ব্যবসায়ী কোটার ভিসা ও অন্যসব ভিসার ক্ষেত্রে নতুন জারি করা এই আদেশ প্রযোজ্য হবে না।

তথ্যসূত্রঃ banglanews24