আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ৬২ বার

শৈলকুপায় আ’লীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার বাগুটিয়া গ্রামে আওয়ামীলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে আহত হয়ে এখন পর্যন্ত ৮ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশংকাজনক। আহতরা হলেন, শৈলকুপা উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ রানার বড় ভাই বাগুটিয়া গ্রামের আওয়ামীলীগ কর্মী বাদশা মিয়া, একই এলাকার গোলাম মোস্তফা ও সাইদুল্লাহ। এদের মধ্যে বাদশার অবস্থা খুবই আশংকা জনক বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন। এ ঘটনায় নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সকাল থেকেই আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপ দেশী অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান করছে। পুলিশ ও প্রত্যাক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, দলীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন ও সাবেক চেয়ারম্যান মফিজের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিলো।

এরই সূত্র ধরে মঙ্গলবার বিকালে বাগুটিয়া গ্রামের এমপির মোড় থেকে মফিজের কর্মীরা বাদশার উপর হামলা করে। হামলাকারীদের প্রতিহত করতে গেলে সাইদুল্লাহ ও গোলাম মোস্তফাকেও তারা কুপিয়ে জখম করে। আহতরা সবাই ফারুক চেয়ারম্যানের সমর্থক বলে জানা গেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া অব্যাহত রয়েছে। নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন অভিযোগ করেন, ভোটে পরাজিত হয়ে এলাকায় খুন জখম, বাড়ি ঘরে হামলা ভাংচুর করে আসছে সাবেক চেয়ারম্যান রঘুনন্দপুর গ্রামের মফিজ ও তার সর্মথকরা। তার কারণে শৈলকুপার এ অঞ্চলে অস্থিরতা বিরাজ করছে। তবে সাবেক চেয়ারম্যন মফিজ উদ্দিন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। শৈলকুপা থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, স্থানীয় আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের কোন্দলের কারনেই এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এলাকায় পুলিশ টহল বাড়ানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

 

তথ্যসূত্রঃ From Email