আপডেট: জুলাই ২৩, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ১২২ বার

ঝিনাইদহ শহরের ২০টি বাজারে মাছ বেচা-কেনা বন্ধ

ঝিনাইদহ শহরের ২০টি মাছ বাজারে শনিবার দিনব্যাপী ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে। মৎস্যজীবী ও আড়াৎদারদের সমস্যার সমাধান করা না হলে তারা বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসুচি ঘোষনা করতে পারে। ঝিনাইদহ শহরের নতুন হাটখোলায় মার্কেট দখল ও মৎস্যজীবী নেতা রবিউল ইসলামের বাড়িতে পুলিশ পরিচয়ে লোক যাওয়ার কারণে শহরব্যাপী এই মৎস্য ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়। ঝিনাইদহ মৎস্য আড়ৎদার বহুমুখি সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম ও একতা মৎস্যজীবী সমায় সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম এ তথ্য জানান। এদিকে জেলা শহরের ২০টি বাজারে মাছ বিক্রি বন্ধ থাকায় সাধারণ নাগরিকরা চরম বিপাকে পড়েছেন। শহরের কোথাও মাছ বিক্রি হচ্ছে না। নতুন হাটখোলার আড়ৎ থেকে মাছ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ফলে মাছ ব্যবসার সাথে জড়িত প্রায় তিন হাজার পরিবার বেকার হয়ে পড়েছে।

একতা মৎস্যজীবী সমায় সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের ভাষ্যমতে শহরের নতুন হাটখোলায় ৩০ বছর আগে কেনা একটি ঘর পৌর কাউন্সিলর জাহিদুল ইসলাম দখল করতে চাই। এ নিয়ে শুক্রবার মাৎস্যজীবীদের সাথে কাউন্সিলর জাহিদের তর্কবিতর্ক ও ধাক্কাধাক্কি হয়। বিষয়টি সুরাহা করতে পুলিশের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়। রাতে মৎস্য আড়ৎদার বহুমুখি সমবায় সমিতির সভাপতি রবিউল ইসলামের বাড়িতে পুলিশ যায়। নজরুল ইসলাম বলেন, এই ঘরের ভাড়া দিয়ে দুস্থ মৎস্যজীবীদের সহায়তা করার পরিকল্পনা নিয়েছেন তারা। কিন্তু ঘরটি বেদখল হয়ে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে পৌর কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র জাহিদুল ইসলাম বলেন, আড়তে তারও দুইটি ঘর ছিল। সেটি নিয়ে সমিতির লোকজন ব্যবসা করছে। আমি সেই ঘরের পরিবর্তে পাশে আরেকটি ঘর তৈরী করছি। তিনি বলেন, যাদের বাড়ি পুলিশ গেছে তারা বিএনপি করে এবং তাদের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা রয়েছে। সাধরণ মৎস্যজীবীদের ভাষ্যমতে কাউন্সিলর জাহিদুলও বিএনপি করতো। এখন সে আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে আমাদের উপর প্রভাব খাটাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, কাউন্সিলর জাহিদের সাথে মৎস্য ব্যবসায়ীদের দ্বন্দের কারণে এমনটি হয়েছে। তিনি বলেন, কোন মৎস্যজীবী নেতার বাড়িতে পুলিশ যায়নি। এটা ¯্রফে গুজব। আমরা বিষয়টি আন্তরিক ভাবে সমাধানের জন্য বিকালে মৎস্যজীবীদের থানায় ডেকেছি। হয়তো শনিবার রাতের মধ্যেই সুরাহা হতে পারে।

ঝিনাইদহে রেললাইনের দাবীতে সরকারী কেসি কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন
প্রতিনিধি ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহ হয়ে পদ্মা সেতু পর্যন্ত রেল লাইনের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে শিক্ষার্থীরা। শনিবার সকালে সরকারী কেসি কলেজের সামনে এ কর্মসূচী পালন করে তারা। ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধনে সরকারী কেসি কলেজের শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন। সেসময় বক্তারা বলেন, বৃটিশ আমলে এই অঞ্চলে রেল লাইন ছিল। কিন্তু পরে তা উঠে যায়। ঝিনাইদহে রেল লাইন না থাকার কারণে এ এলাকার ব্যবসায় বাণিজ্যে প্রসার ঘটছে না। বক্তারা ঝিনাইদহ হয়ে পদ্মাসেতু পর্যন্ত রেল লাইন স্থাপনের দাবী জানান। মানববন্ধন কর্মসূচীতে ওই এলাকার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেয়।

 

তথ্যসূত্রঃ From Email