আপডেট: জুন ৩, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ১৯৯ বার

সভাপতি-সম্পাদক পদে আজ থেকে মনোনয়নপত্র বিক্রি

আগামী ১০ জুলাই যশোর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। শুক্রবার যশোর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে এই তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল অনুযায়ী আজ শনিবার থেকে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়ন সংগ্রহ করা যাবে। আর বৈধ প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে আগামী ৫ জুলাই।
তফসিল ঘোষণার সময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল,  সহ-সভাপতি ও  প্রধান নির্বাচন কমিশনার জামাল হোসেন শিমুল, হাফিজুর রহমান হাফেজ, মনোয়ার হোসেন ইমন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবীর শিপলু, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও সরকারি এমএম কলেজের সভাপতি রওশন ইবকাল শাহী, শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান রনি, সদস্য সালসাবিল আহমেদ জিসান প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলন থেকে জানানো হয়, ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ২৯ বছরের কম বয়সী নিয়মিত ছাত্র এবং অবিবাহিতরা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করতে পারবেন। এমন ছাত্ররা শনিবার থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। যা চলবে ১৫ জুন পর্যন্ত। এই সময়ের মধ্যে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিতে হবে। নির্বাচন কমিশন উপকমিটির কাছ থেকে দুই হাজার টাকার বিনিময়ে এই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে হবে। জামা দেওয়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে আগামী ৫ জুলাই নির্বাচন কমিশন বৈধ প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করবে। আর এদের মধ্য থেকে ১০ জুলাই যশোর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে কাউন্সিলররা নেতা নির্বাচন করবেন।
এর আগে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ যশোর জেলা ছাত্রলীগের ১৭তম সম্মেলনের জন্য ১০ জুলাই দিন ধার্য করে। আর সম্মেলন সফল করতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদের সভাপতিত্বে গত ৬ মে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা থেকে ৯টি উপ-কমিটি গঠন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলন থেকে জানানো হয়, ‘যশোর জেলা ছাত্রলীগের অধীনে ২০টি ইউনিট রয়েছে। যার মধ্যে ১৫টি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। সেই হিসেবে জেলায় বর্তমানে কাউন্সিলর আছেন ৫৪০ জন। মণিরামপুর, বাঘারপাড়া, কেশবপুর ও চৌগাছা পৌর কমিটি ও যশোর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের ছাত্রলীগের কমিটি এখনো গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের আগে এই পাঁচটি ইউনিটের কমিটি গঠন করা হতে পারে।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও যশোর জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আনোয়ার হোসেন আনু বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী নিয়মিত ছাত্র ও দলের নিবেদিত কর্মীরা যাতে নেতৃত্বে আসে সেই ব্যবস্থা করা হবে। কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে নেতা নির্বাচিত হবে। বিগত দিনে জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন নিয়ে প্রশ্ন কিংবা সংশয় থাকতে পারে। এবারের সম্মেলনে যাতে কোন প্রশ্ন না উঠে সেই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এজন্য সকলের সহযোগিতা চাই।
সংবাদ সম্মেলনে আনোয়ার হোসেন বিপুল বলেন, ছয় বছর পর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ১০ জুলাই সম্মেলন জাকজমকপূর্ণভাবে হবে। তিনি আরও বলেন, সুষ্টু ও সুন্দরভাবে সম্মেলন সফল করার সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। যদি কেউ বিশৃংখলার চেষ্টা করে, তবে তার দায়ভার ছাত্রলীগ নেবে না। বিশৃংখলাকারীদের দায় তাদের নিজেকে বহন করতে হবে। আমরা চাই প্রত্যেক্ষ ভোটের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে। তবে সমঝোতার ভিত্তিতে কমিটি হলে তখন ভোটের প্রয়োজন হবে না।

তথ্যসূত্রঃ Samajer Katha