আপডেট: মে ২৮, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ৮০ বার

অনার্স ১ম বর্ষে যশোর এমএম ও মহিলা কলেজের ভাল ফল

তুষার আহসান:  যশোরের দুইটি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা অনার্স ১ম বর্ষে ভাল ফল করেছে। সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ থেকে ৯৪ দশমিক ১৯ এবং মহিলা কলেজ থেকে ৯৪ দশমিক ৯৭ ভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যময় রেজাল্টে আনন্দে মেতে ওঠেন শিক্ষার্থীরা। খুশি অধ্যক্ষ, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও অভিভাবকরা। এদিকে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সরবরাহকৃত আইডি-পাসওয়ার্ডে সমস্যা দেখা দেয়ায় নিজেদের লিঙ্কে প্রকাশিত রেজল্টের পরিসংখ্যান নিতে পারেনি সরকারি সিটি কলেজ।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে অনার্স প্রথম বর্ষের রেজাল্ট প্রকাশিত হয়েছে বৃহস্পতিবার। এতে এম এম কলেজের ১৯টি বিভাগ থেকে ২ হাজার ৬শ’ ৩১ জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করেন। এর মধ্যে কৃতকার্য হয়েছেন ২ হাজার ৪শ’ ৭৮ জন। মোট পাশের এক-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থীই প্রথম বিভাগ পেয়ে সম্মান দ্বিতীয় বর্ষে উন্নীত হয়েছেন। সরকারি এমএম কলেজ কলেজ সূত্র জানায়, জিপিএ প্রাপ্তির ভিত্তিতে বিভিন্ন বিভাগ থেকে মোট ৮১৭ শিক্ষার্থী প্রথম বিভাগ অর্জন করেছেন। দ্বিতীয় বিভাগ অর্জনকারীর সংখ্যা ১ হাজার ২শ’ ২২ এবং তৃতীয় বিভাগ পেয়েছেন ৪শ’ ৩৯ জন।
এদিকে, সরকারি মহিলা কলেজের ৯টি বিভাগ থেকে অনার্স প্রথম বর্ষে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিলো ১ হাজার ২শ’ ৭২ জন। এর মধ্যে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন ১ হাজার ২শ’ ৫৭ জন। এদের ৪৯ জন ছাড়া সবাই দ্বিতীয় বর্ষে উত্তীর্ণ হয়েছেন। কৃতকার্য ১ হাজার ২শ’ ৮ জন শিক্ষার্থীর ১৬৭ জন পেয়েছেন প্রথম বিভাগ। এর মধ্যে ভূগোলে ৪০, রাষ্ট্রবিজ্ঞানে ৩০ এবং ইসলামের ইতিহাসে ৩১ শিক্ষার্থী এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন। এছাড়া ইংরেজিতে ৭, বাংলায় ১৫, দর্শনে ১২, ইসলামি স্ট্রাডিজে ১৪, ইতিহাসে ১৩ এবং অর্থনীতিতে ৫ শিক্ষার্থী প্রথম বিভাগ অর্জন করেছেন।
বৃহস্পতিবার রেজাল্ট প্রকাশের পর দুটি কলেজের বিভাগে বিভাগে আনন্দে মেতে ওঠেন শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। উল্লসিত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদেরকে মিষ্টিমুখ করতে দেখা যায়।
কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান জানান, ‘এই শিক্ষার্থীরা আমাদেরকে আগামী দিনে যেনো শতভাগ সাফল্যের মনোমুগ্ধকর রেজাল্ট উপহার দিতে পারে সেদিকেই ধাবিত করা হবে। শিক্ষকদের পাঠ পরিচালনা, আন্তরিকতা এবং শিক্ষার্থীদের পাঠ মনোযোগিতায় এই সাফল্য এসেছে। আগামীতে আরো ভালো ফলাফল সম্ভব হবে বলে আমার বিশ্বাস।’
সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. এম হাসান সরোওয়ার্দী জানান, ‘ইংরেজিসহ সব বিষয়েই শিক্ষার্থীরা প্রথম বিভাগ অর্জন করেছে। এটা শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিয়মতান্ত্রিক আন্তরিক প্রচেষ্টার ফল। সামনে আরো ভালো ফলাফল আনতে সার্বিক প্রচেষ্টা থাকবে। শিক্ষার্থীরাও তাদের মেধা ও মনন দিয়ে কলেজের সুনাম ও ঐতিহ্য বাড়াবে।’
যশোরের অপর সরকারি কলেজ (সিটি কলেজ) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সরবরাহকৃত আইডি-পাসওয়ার্ডে সমস্যা দেখা দেয়ায় নিজেদের লিঙ্কে প্রবেশ করতে পারেনি। ফলে কলেজটি তাদের শিক্ষার্থীদের ফলাফল ঘোষণা করতে পারেনি। সরকারি সিটি কলেজসূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার থেকে হঠাৎ পাসওয়ার্ড ভুল দেখাচ্ছে। আর ওই দিনই অনার্স প্রথম বর্ষের রেজাল্ট প্রকাশ করা হয়েছে। এদিকে, শুক্র-শনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করাও সম্ভব হয়নি। ফলে প্রথম বর্ষের কলেজটির সার্বিক ফলাফল সম্বন্ধে তারা এখনো অন্ধকারে। তবে শিক্ষার্থীরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবে ঢুকে তাদের রেজাল্ট নিতে পেরেছেন।
এ যশোর সিটি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু তোরাব মো. হাসান জানান, ‘জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগাযোগ সম্ভব না হলেও ইমেইলে বিষয়টি জানানো হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, আগামীকালই সমস্যা কেটে যাবে।’

তথ্যসূত্রঃ Samajer Katha