আপডেট: এপ্রিল ৬, ২০১৭   ||   ||   মোট পঠিত ১৪৮ বার

ঝিনাইদহে স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে নয়ন হোসেন নামে এক স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে এক স্কুল শিক্ষক। এ ঘটনায় ঐ শিক্ষার্থী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ দিলে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্কুল কমিটি অভিযুক্ত শিক্ষক মশিয়ার রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে।

আহত মো: নয়ন হোসেন এসসিএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র ও চাদবা গ্রামের হযরত আলীর ছেলে। আহত মো: নয়ন জানান, সকালে বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মশিয়ার রহমান তার পড়া ধরে। নয়ন পড়া না পারায় শিক্ষক বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের দিয়ে নয়নের কান মলে দেয়।

নয়ন এতে বাধা দিলে শিক্ষক তাকে বেদম মারপিট করে। এতে নয়ন রক্তাক্ত জখম হয়। নয়নের পরিবারের লোকজন তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে।

নয়নের বোন ফাহমিদা আক্তার জানান, তারা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে বিচার দিলেও কোন ফল পায়নি বরং প্রধান শিক্ষকের সামনেই অভিযুক্ত শিক্ষক মশিয়ার রহমান তাদের অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে। বিচার না পেয়ে তারা বুধবার দুপুরে শিক্ষককের শাস্তির দাবিতে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি স্বীকার করে জানান, অভিযুক্ত শিক্ষক ছাত্রকে মেরে ভুল করেছে। অভিযুক্ত শিক্ষক মশিয়ার রহমান তার ভুল স্বীকার করেন। কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছাদেকুর রহমান জানান, বুধবার দুপুরে আহত নয়ন একটি লিখিত অভিযোগ দেয়।

তার অভিযোগের ভিত্তিতে ঐ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সদস্যকে উপজেলায় তলব করা হয়। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি তাকে জানিয়েছেন অভিযুক্ত শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২ সদস্য বিশিস্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে ২ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।

তথ্যসূত্রঃ From Email