আপডেট: অক্টোবর ১৩, ২০১৪   ||   ||   মোট পঠিত ২৩৮ বার

শৈলকুপায় বানিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে জাম্বুরার

জাম্বুরা বা বাতাবী লেবু এক প্রকার লেবু জাতীয় টক-মিষ্টি ফল। এর ইংরেজি নাম Pomelo (pummelo বা pommelo) এবং বৈজ্ঞানিক নাম Citrus maxima বা Citrus grandis। মৌসুমী ফলের মধ্যে এখন সময় জাম্বুরার। লেবু জাতীয় ফলের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড়। এর ওজন ১-২ কেজি হয়। এর আদিভূমি দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া। এটি একটি ভিটামিন সমৃদ্ধ ফল। এর পুষ্টিমান অনেক উন্নত।

বর্তমানে ঝিনাইদহের শৈলকুপায় বানিজ্যিকভাবে জাম্বুরার চাষ শুরু হয়েছে । বিশেষ করে শৈলকুপার হারুন্দিয়া, গকুল নগর, দহকুলা, বেনীপুর গ্রামের চাষিরা জাম্বুরার চাষ করে বেশ লাভবান হচ্ছেন । এ বছর এই অঞ্চলে জাম্বুরার বেশ ভালো ফলন হয়েছে। শৈলকুপার এক জন জাম্বুরা চাষি জানান, এখানে জাম্বুরার চাষ বেশ লাভজনক। তাই এখানকার কৃষকদের মধ্যে এ ব্যাপারে দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে। আমার পুরানো একটা গাছে ১৫শ’ থেকে ১৮’শ জাম্বুরা হয়েছে। নিজেদের জন্য রেখে পাইকারি ক্রেতাদের কাছে ৪৭শ’ টাকায় বিক্রি করেছি। তিনি আরও জানান, জাম্বুরা চাষের জন্য তেমন কোন খরচও হয় না ।

জনপ্রিয় ফল জাম্বুরার চাহিদা রয়েছে সারাদেশেই। এখানকার জাম্বুরা এখন স্থানীয় পর্যায় ছেড়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যাচ্ছে। ফলে বাণিজ্যিকভাবে চাষ করে এখানকার কৃষকরা লাভবান হচ্ছেন। শৈলকুপা বাজারে গিয়ে দেখা যায়, পাইকারী ও খুচরায় বিক্রি হচ্ছে জাম্বুরা। খুচরায় বড় সাইজের প্রতিটি জাম্বুরা সর্বোচ্চ ৩০ টাকা ও ছোট সাইজের জাম্বুরা ১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এ অবস্থায় কৃষি বিভাগের সহায়তা পেলে এখানে পরিকল্পিতভাবে জাম্বুরার চাষ করা সম্ভব বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, জাম্বুরা গাছের ফল পাওয়া যায় ২০ থেকে ৩০ বছর পর্যন্ত। পরিপূর্ণ একটি গাছে বছরে আড়াই’শ থেকে চার’শ জাম্বুরা ধরে। মার্চ/এপ্রিল মাসে ফুল থেকে ফল এবং অক্টোবর/নভেম্বর মাসে জাম্বুরা পাকতে থাকে।


তথ্যসূত্রঃ