আপডেট: জানুয়ারী ২৪, ২০১৪   ||   ||   মোট পঠিত ৪৬২ বার

মধুসূদন পদক পাচ্ছেন কবি খসরু পারভেজ

এবার মহাকবি মধুসূদন পদক পাচ্ছেন সাগরদাঁড়ির সন্তান মধুসূদন গবেষক ও সাগরদাঁড়ি মধুসূদন একাডেমির পরিচালক কবি খসরু পারভেজ। তার লেখা মধুসূদন বিচিত্র অনুষঙ্গ গবেষণা গ্রন্থের জন্য ‘গবেষণাধর্মী সাহিত্যকর্ম’ ক্যাটাগরিতে তিনি এ পদকের জন্য মনোনীত হয়েছেন বলে পদক মূল্যায়ন কমিটির আহ্বায়ক যশোর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিা ও আইসিটি) জাহিদ হোসেন পনির জানান। মহাকবির জন্মভূমি কেশবপুরের সাগরদাঁড়ি মধুসূদন জন্মজয়ন্তী ও মধুমেলার সমাপনী অনুষ্ ানে আগামী ৩১ জানুয়ারি গবেষক খসরু পারভেজের হাতে পদক তুলে দেবেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. আব্দুল জলিল।

কবি খসরু পারভেজ আশির দশকের অন্যতম প্রধান কবি। ভালোবাসা এসো ভূগোলময়, মুক্তিযুদ্ধের কুকুরগুলো, পুড়ে যায় রৌদ্রগ্রাম, জেগে ও ো প্রতœবেলা, রূপের লিরিক, ধর্ষণমঙ্গল কাব্য, প্রেমের কবিতা, হৃদপুরাণ তার উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ। জীবনী গ্রন্থ এস.এম সুলতান, মাইকেল মধুসূদন দত্ত এবং গবেষণা ও গদ্যগ্রন্থের মধ্যে মাইকেল পরিচিতি, সাধিতে মনের সাধ, এস এম সুলতান, আমাদের বাউল কবি লালন শাহ্ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। ইতিপূর্বে তিনি কণ্ শীলন পদক, সুকান্ত পদক, মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান পদক, বিবেকানন্দ পদক, মনোজ বসু স্মৃতি পদকসহ দেশ-বিদেশে অনেক পুরস্কার ও সম্মানে ভূষিত হয়েছেন।

খসরু পারভেজ ১৯৬২ খ্রিস্টাব্দের ২৫ ফেব্র“য়ারি যশোর জেলার কেশবপুরের সাগরদাঁড়ি সংলগ্ন শেখপুরা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মরহুম খন্দকার মকবুল আহমেদ, মাতা লুৎফুন্নেছা লতা। তিনি মধুসূদন স্মারক সংস্থা মধুসূদন একাডেমীর প্রতিষ্ াতা পরিচালক। বর্তমানে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড কেশবপুর শাখায় কর্মরত।

তথ্যসূত্রঃ দৈনিক লোকসমাজ